সুন্দরগঞ্জে গ্রামীণ রাস্তাগুলোর বেহাল দশা, বছরেও মেলেনা সংস্কার কাজ

ফাহিম হাসান, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ গত কয়েক সপ্তাহের টানা বর্ষনে এবং অবাধে পাওয়ার টিলার ও কাঁকড়া গাড়ি চলাচলের কারণে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার কাঁচা রাস্তাগুলো খানা খন্দে ভরে গিয়ে বেহাল দশার সৃষ্টি হয়েছে ।

উপজেলার প্রত্যেকটি কাঁচা রাস্তার মাঝখানে গর্তে পানি জমে হাটু ও গিটা কাঁদায় পরিণত হয়েছে। সে কারণে সকল প্রকার যাবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে । পায়ে হেঁটেও চলাচল করা যাচ্ছে না সেইসব রাস্তা দিয়ে। রাস্তাগুলোর এ অবস্থা হওয়ার কারণে অনেকে বাড়ি হতে বের হতে পারছে না। উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ফিরে দেখা গেছে, কাঁচা রাস্তাগুলোর বেহাল দশা। বিশেষ করে মোটর সাইকেল, বাইসাইকেল, অটোভ্যান, রিক্সা, ঘোড়ার গাড়ি, অটোবাইক চলাচল অত্যন্ত দূর্বিষহ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের ফলগাছা গ্রামের কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা জানান, রাস্তার অবস্থা খুব খারাপ। কোথাও যাওয়া যায় না। হাট-বাজার করতে পারি না খুব কষ্ট হচ্ছে। বাড়ি থেকে বাজারের দূরত্ব প্রায় সাড়ে ৩ কিলোমিটার। এই বর্ষা মৌসুমে কাঁচারাস্তা দিয়ে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পরেছে। দীর্ঘদিন থেকে সংস্কার ও মেরামত না করার কারণে অসংখ্য খানা-খন্দে পরিনত হয়েছে রাস্তাগুলো । বৃষ্টির পানি গর্তে জমে হাটু কাঁদায় পরিনত হয়েছে। বর্তমানে রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করা অত্যন্ত দুষ্কর হয়ে পড়েছে। অনেকে হাট বাজার করতে পারছে না। কোন কোন পথচারী নিরুপায় হয়ে মালকাছা (নেংটি খিচে) মেরে জুতো হাতে নিয়ে চলাচল করছে। মনে হয় এ যেন কোন চলাচলের রাস্তা নয়, আস্ত একটা ফসলি জমি। এসব দেখার যেন কেউ নেই। যার কারনে অনেকে বলছে রাস্তায় আমন ধান লাগানো হোক।

এ ব্যাপারে বামনডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান নজমুল হুদা জানান, দীর্ঘদিন থেকে ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে রাস্তা সংস্কার ও মেরামতের জন্য কাবিখা প্রকল্প না থাকায় কাঁচা রাস্তাগুলোয় মাটির কাজ করা হচ্ছে না। সে জন্য বৃষ্টির কারণে মাটি ধসে গিয়ে কাঁদা ও গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, তারপরেও আমি ব্যক্তিগত অর্থায়নে এলাকার অনেক রাস্তার কাজ চলমান রেখেছি।

উপজেলার গ্রাম-গঞ্জের প্রত্যেকটি এলাকার মানুষের প্রাণের দাবি এসব ভোগান্তি থেকে মুক্তি হওয়ার। তাই তারা এ ব্যাপারে স্থানীয় সাংসদ ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারীর সুদৃষ্টি কামনা করছেন।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০