ঘিওরে পানি বন্দী প্রায় দশটি গ্রামের ২০ হাজার মানুষ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মানিকগঞ্জ জেলার ঘিওর উপজেলার প্রায় দশটি গ্রাম পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। গ্রামগুলোর মধ্যে মৌহালী,করজনা,আশাপুর, হিজুলিয়া, রাহাতাটি,বড়টিয়া,কুসুন্ধা,বরড়া,ঠাকুরকান্দী,শৈলাকইড়া, ফুলহারা,পেচারকান্দা, শ্রীধরনগর,উল্লেখযোগ্য। এসব গ্রামের মানুষের ঘরবাড়ি সব পানিতে তলিয়ে গেছে। তারা অতিকষ্টে জীবন যাপন করছে। আশাপুর গ্রামের বাসিন্দা আকবর মিয়া বলেন আমরা,কিভাবে বাচব তা আমরা জানি না,বন্যার পানি আমাদের সবকিছু কেড়ে নিয়েছে।বাড়িতে পানি ওঠার ফলে আমরা ছেলে মেয়ে নিয়ে উচু রাস্তা উঠেছি।এখানে কোন মত একটা টিন দিয়ে ঘর বানাইছি তাও আবার বৃষ্টি পড়লে পানি এসে সবাই ভিজে যাই। বড়টিয়া গ্রামের বাসিন্দা শুকুর আলী বলেন আমাগো দেহনের কেউ নাই, করোনা ও বন্যা আমাগোরে শেষ কইরা দিলো।আমি সরকারের কাছে আবেদন জানাই যেন আমাগো খাদ্য দিয়া জীবন বাঁচান। তিনি বলেন আমার দুইডা গরু আছিল হেইগুলা বিক্রি কইরা খাইচি,এহন আর ঘরে খাওনের কিছু অবশিষ্ট নাই। ঠাকুরকান্দী গ্রামের যুবক মোঃ ইমরান মিয়া বলেন বন্যার কারনে আমাদের অনেক অসুবিধা হচ্ছে,যেমন বসতভিটা পানিতে তলিয়ে গেছে, খাবার পানির চরম সংকট দেখা দিয়েছে, বিশুদ্ধ খাবার পানির অভাবে পানিবাহিত বিভিন্ন রোগ দেখা দিয়াছে, এলাকায় সাপের উপদ্রব বেড়ে গেছে।জীবনযাত্রার মান খুব খারাপের দিকে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে স্থানীয় ওয়াডে’র ইউপি সদস্য বলেন আমার প্রত্যকটা বন্যাকবলিত গ্রামের খোঁজ খবর নিচ্ছি তাদের বিভিন্ন সাহায্য ও সহযোগিতা করছি এবং সরকারের পক্ষ থেকে আমরা শুকনো খাবারের ও ব্যাবস্থা করছি যাতে করে কোন পরিবার যেন নাখেয়ে দিন কাটায়।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন