বণ্যার পানিতে স্কুলছাত্রী ও কিশোরের মৃত্যু

শেরপুর প্রতিনিধি: শেরপুর সদর উপজেলার শ্রীবরদীতে বণ্যার পানিতে সাঁতার কাটতে গিয়ে স্কুল ছাত্রী ও এক কিশোর কাঠমিস্ত্রির মৃত্যু হয়েছে।
গত ২৩ জুলাই রোজ বৃহস্পতিবার পৃথক পৃথক এই দুইটি ঘটনা ঘটে।

শেরপুর জেলার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের খাসপাড়া এলাকার জমসেদ আলীর মেয়ে ১৪ বছর বয়সী বন্যা আক্তার এবং শ্রীবরদী পৌরসভার তাতিহাটি নয়াপাড়া এলাকার আবু শামার ছেলে ১৭ বছর বয়সী আলী আকবর। বন্যা চরশ্রীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী এবং আলী আকবর পেশায় কাঠমিস্ত্রী ছিল।এ নিয়ে গত ৪ দিনে বন্যার পানিতে ডুবে ও সাপের কামড়ে শেরপুরে ৪ জনের মৃত্যু ঘটলো।

জানা যায়, বাড়ির চারিদিকে পানি উঠায় কলার ভেলায় করে তারা কয়েকজন বান্ধবীর সাথে বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে বন্যার পানিতে সাঁতার কাটতে যায় স্কুলছাত্রী বন্যা আক্তার। কিন্তু আকস্মিকভাবে কলার ভেলাটি উল্টে তার নিচে চাপা পড়ে বন্যা। একসময় স্রোতের টানে পানিতে ডুবে তার মৃত্যু ঘটে।
অপর দিকে একি দিনে দুপুরে শ্রীবরদী পৌর শহরের তাতিহাটি নয়াপাড়া এলাকায় বন্যার পানিতে টইটুম্বুর মিরকি বিলে কিশোর কাঠমিস্ত্রী আলী আকবরসহ একদল যুবক সাঁতার কাটতে যায়। ওইসময় সবার অজান্তে বিলের পানিতে তলিয়ে যায় আলী আকবর। কিছুক্ষণ পর তার সাথের যুবকরা পানিতে খুঁজতে খুঁজতে প্রায় ৭-৮ ফুট পানির নিচ থেকে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে।

পরে আলী আকবরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন তাকে ।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন