হোয়াইক্যং জিয়া’র নানান কুকীর্তি ফাস – গ্রামীন নিউজ২৪ টিভি

বিশেষ প্রতিনিধি: কে এই জিয়া? কিই’বা তার পরিচিত? কোথায় তার জন্ম? কি ভাবে সে বর্তমান টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়ন এর বর্তমান বসবাসরত স্থায়ী বাসিন্দা?

হোয়াইক্যং এর জিয়াউর রহমান জিয়া, ওরফে গরুর ডাঃ বেলাল ২০০৯ সালে হোয়াইক্যং য়ে আগমন করে। তখন তার তেমন পরিচিতি ছিলনা। পরবর্তীতে পরিচিত ঘটে তুলে সুনামের সাথে নই বরণ কুখ্যাতি দিয়ে তার পরিচিতি হয়ে এলাকায়।

২০০৯ সালের দিকে হোয়াইক্যং এর জন সাধারণের প্রধান পেশা ছিল মাস শিকার,হাল চাষ,গবাদি পশুপালন। স্থানীয়দের প্রতিটি ঘরে ঘরে ছিল দু-তিন টে গরু ও ছাগলের পাল। বর্ষা নামলে রাখালরা দল বেধে গরু ও ছাগলের পাল চড়াতে নিয়ে যেত পাহাড় বনে।পাহাড়ে রাখালদের আনাগোনার কারণে কেউ বন থেকে গাছ ধ্বংস করতে পারতো না। এক কথায় রাখাল রা ছিল বনের পাহারা রক্ষাী।কিন্তু আকাস্মাৎ ২০০৯ সালের কোন একদিন এই গরুর ডাঃ বেলাল ফরেস্ট ডিপার্টমেন্ট এর সদস্য পরিচয় দিয়ে রাখাল দের দলে ডুকে পড়ে। রাখালদের বিভিন্ন ভাবে ভয় ভিতি প্রদর্শন করে তাদের কাছ থেকে টাকা আদায় করার চেষ্টা করে পরে ব্যার্থ হই।

সেই দিন একজন হোয়াইক্যং এর এক মহিলা রাখাল এর গরু বনে হারিয়ে যাওয়ার কারণে মহিলা রাখাল আসরের নামাজের পরে একা গৃহপালিত গরুটির সন্ধানে পাহাড়ের যাই। রাখাল মহিলা কে একলা দেখতে পেয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে, পরে ওই মহিলার চিৎকার ও চেঁচামেচির শব্দ শুনে অন্য রাখাল রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্বার করে বাড়ি নিয়ে যা-ই। পরিশেষে জিয়াউর রহমান জিয়া ওরফে গরুর ডাঃ বেলাল এর পরিচিয় সন্ধানে তার পরিচয় ওঠে আসে সে হোয়াইক্যং এর গ্রাম ডাঃ মমতাজ এর মেয়ের জামাই। পাঠক সেখানে তাকে একপ্রকার গণপিটুনি দেয় উপস্থিত আমজনতা। এখান থেকে তার কুকর্মের সুচনা।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন