ভেড়ামারার জগৎ জননী মাতৃ মন্দির নিয়ে মিথ্যাচার পর্ব – ১ – গ্রামীন নিউজ২৪ টিভি

শামীমা ইয়াসমিন ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) থেকে- শ্রী শ্রী জগৎ জননী মাতৃ মন্দির কুষ্টিয়া ভেড়ামারা উপজেলার একটি ঐতিহ্য মন্ডিত জগৎ জননী মাতৃমন্দির। দীর্ঘ যুগ ধরে সুনামের সহিত মন্দিরটি গঠনতন্ত অনুযায়ী কমিটির দ্বারা পরিচালিত হয়ে আসছে।
তারপরও কতিপয় অসাধু ব্যক্তি, সাংবাদিক / ব্যক্তিদের ভুল তথ্য সরবরাহ করে নিউজ করায় শুধু জগৎ জননী মাতৃ মন্দির এবং কমিটির সুনামই নষ্ট করেনি বরং চরম মিথ্যাচার প্রচার করায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের আঘাত করেছেন।
তাদের পোস্টে দেখা যায় তারা লিখেছে গত ৫ বছরের আয়-ব্যয়ের হিসাব না দেয়া এবং সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কারো সাথে আলোচনা না করে নিজস্ব মতামত এর গুরুত্ব দেয়া সহ বর্তমান পুরোহিত সহ আরেক প্রভাবশালী সাথে আতাত,,,,,, ইত্যাদি।

স্বরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় আয়-ব্যয়ের হিসাব সহ সকল অভিযোগের কাগজপত্র, রেজুলেশন সবই ঠিক আছে। কতিপয় ব্যক্তিবর্গ সনাতন ধর্মাবলম্বীর জগৎ জননী মাতৃ মন্দির কে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির লক্ষে ভুল তথ্য সরবরাহ করে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করিয়েছে বলে অত্র মন্দিরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এই প্রতিবেদক কে জানিয়েছেন।
উনারা আরো বলেন এটি কোন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান নয় এটা ধর্মীয় উপাসনালয়। ধর্মীয় বিভিন্ন পার্বন ও অনুষ্ঠানসূচীকে সামনে রেখে কমিটির বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়। বর্তমান কমিটিতে বলরাম বিশ্বাস সভাপতির দায়িত্ব পালন করছিলেন কিন্তু তিনি শারীরিকভাবে উক্ত পদের দায়িত্ব পালনের মত সক্ষম না হওয়ায় তার অসুস্থতার কারনে কার্যকরী সভাপতি অসীম কুমার সভাপতির দায়িত্বে আছেন। সাধারন সম্পাদক কার্তিক কুন্ডু ও কোষাধ্যক্ষ গোপাল পন্ডিত। মন্দির কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক জানিয়েছেন, ১৩ ই মার্চ ২০২০ তারিখে কমিটির সাধারন সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তাতে ঐ দিন পর্যন্ত হালনাগাদ হিসাব বিবরনী উপস্থাপন করা হয়। এছাড়া ২০/০৫/২০২০ তারিখ পর্যন্ত ২০১৫,১৬,১৭,১৮,১৯ এই পাঁচ বছরের অর্জিত ৩ ভরি আট আনা ২ রতি ৪ পয়েন্ট সোনা এবং ১৮ ভরি ১৫ আনা ৯ রতি ৭ পয়েন্ট রুপা ক্যাশিয়ার গোপাল চন্দ্র পন্ডিতের হেফাজতে আছে। যা গোপাল চন্দ্র ২০/০৫/২০ তারিখে নিজ স্বাক্ষরে তার নিকটে জমা থাকার বিষয়টি স্বীকার করে। জগৎ জননী মাতৃ মন্দিরের ৪ বছরের হিসাবের বিবরণী নেই মর্মে যারা গুজব ছড়িয়েছেন তারা অশুভ কোন উদ্দেশ্যে ষড়যন্ত্রে মেতেছেন।

অপরদিকে গত ০৮ আগষ্ট দুপুর ১২.৩০ ঘটিকার সময় কমিটির সাধারন সম্পাদক কার্তিক কুন্ডুর পক্ষে ও বিপক্ষে তথাকথিত গণস্বাক্ষর গ্রহনের সময় মন্দিরের সভাপতি ও সেক্রেটারীর উপর হামলার ঘটনায় মহাদেব কুন্ডু ও নন্দ দুলাল কুন্ডুর নামে ভেড়ামারা থানায় একটি সাধারন ডায়রী করা হয়েছে। জিডি নম্বর ৩৪৬, তারিখ ০৯/০৮/২০খ্রিঃ। জানা গেছে জগৎ জননী মাতৃ মন্দিরের কমিটি ৪১ সদস্য বিশিষ্ট। কমিটির কতিপয় সদস্য ব্যক্তিগত ঈর্ষা বা ক্ষমতা লোভের পরিকল্পনা অথবা উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে শৃংখলা পরিপন্থী কাজে জড়িয়ে পড়েছেন। তাদেরকে কারন দর্শানো নোটিশ প্রেরন ও মাতৃ মন্দিরের পরবর্তী অধিবেশনে এসকল বিষয়ে আলোচনা করা হবে জানিয়েছেন সংগঠনের পুরোধা ব্যক্তিত্বগণ।
আর্থিক অনিয়ম শুধু নয় যেকোন অনিয়ম রোধে বর্তমান কমিটি সজাগ রয়েছে বলে জানান। তারা আরো বলেন, ব্যক্তি কার্তিকের উপর এককভাবে দোষ চাপিয়ে কেউ ঘোলা জলে মাছ শিকারের স্বপ্ন দেখছে। জগৎ জননী মাতৃ মন্দির কমিটির কার্যক্রম স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতাপূর্ণভাবে পরিচালিত হয়ে আসছে। তবু কখনো কোথাও কোন বিচ্যূতি ঘটলে তার একক দায় সাধারন সম্পাদকের উপর বর্তায় না। মন্দির কমিটির উক্ত নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে স্বার্থান্বেষীদের অপবাদমূলক প্রোপাগান্ডায় কান না দেওয়ার আহবান জানিয়েছেন এবং মিথ্যা অপবাদকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন