তাহিরপুরে ভ্রমণে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন জায়েদ – গ্রামীন নিউজ২৪ টিভি

শাবজল হোসাইন: সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের পর্যটন খ্যাত রামসার প্রকল্পভুক্ত টাঙ্গুয়ার হাওরে বন্ধুদের সাথে বেড়াতে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন তিতুমীর কলেজ ছাত্র জায়েদ চৌধুরী (২৫)।
শুক্রবার সন্দায় তার মরদেহ সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন বলে জানান, তাহিরপুর থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান।
নিহত জাহেদ রাজধানী ঢাকার তিতুমীর কলেজের স্নাতক চুড়ান্ত বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।
তার বাবা প্রয়াত ফজুলর রহমান চৌধুরী। নিহতের গ্রামের বাড়ি ফেনী জেলায় হলেও মা ও পরিবারের সাথে তিনি রাজধানী ঢাকার মানিকদীর তিন রাস্তার মোড় ঢাকা ক্যান্টনম্যান্ট -১২০৬ আবাসিক এলাকায় বসবাস করতেন।
নিহতের সহপাঠি ও থানা পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, জায়েদ চৌধুরী সহ ১১ জন বন্ধু ও সহপাঠিরা মিলে ঢাকা হতে বাসযোগে যাত্রা করে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে পৌছেন বৃহস্পতিবার সকালে।
এরপর তারা স্থানীয়ভাবে একটি ইঞ্জন চালিত ট্রলার (নৌকা) ভাড়া নিয়ে বেলা ৩টার দিকে টাঙ্গুয়ার হাওরে ভ্রমণ করেন।
বিকেলে ওই ট্রলারে করেই উপজেলার টেকেরঘাট সীমান্ত এলাকায় ফেরেন ভ্রমণকারীগণ।
টেকেরঘাট সীমান্ত এলাকায় ঘুরাফেরা ও শহীদ সিরাজ লেকে সন্ধা অবধি সকল বন্ধু সহপাঠিরো মিলে ঘুরাফেরা শেষে টেকেরঘাটের সামনে থাকা ছেলাইয়া হাওরের মধ্যবর্তী স্থানে ট্রলার নোঙ্গর করে ট্রলারেই রান্নাকরা রাতের খাবার দাবার শেষে রাত ১টার পর ট্রলারেই রাত্রী যাপনে করেন সবাই। একই রাতে ট্রলারের ভেতর কেক কেটে কোন এক বস্থুর জন্ম দিনের পার্টিও দেন সবাই।
এর পরবর্তীতে সময়ে কোন এক বন্ধুর মুফোফোনে সেলফি তুলতে গিয়ে জাহেদ চৌধুরী ট্রলার হতে পড়ে গিয়ে হাওরের পানিতে নিখোঁজ হন।
এরপর শুক্রবার সকাল হতে তার সন্ধানে নামেন থানা পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন। বিকেল চারটার দিকে মাছ ধরার জাল ফেলে উদ্ধার করা হয় জায়েদের মরদেহ।
থানার এসআই পাপেল রায় শুক্রবার রাতে জানান, নিহত জায়েদের মা সৈয়দা ফাতেমা আক্তার শিল্পীর সাথে থানা হতে মুফোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ছেলের মরদেহ মর্গে পাঠানোর ব্যাপারে সম্মতি প্রদান করেন।
ট্রলারে হাওরের বুকে রাত্রীযাপন নিষিদ্ধ করার দাবি: এদিকে তিতুমীর কঔেৎ শিক্ষার্থী জায়েদ চৌধুরী নিহত হওয়ার ঘটনায় সুনামগঞ্জ ও তাহিরপুরের বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজন গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশী সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন, পুলিশ সুপার, ২৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন সুনামগঞ্জ বিজিবি ,তাহিরপুর উপজেলা প্রশাসনসহ আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজন দাবি তুলেছেন টাঙ্গুয়ার হাওর বারেকটিলা, জাদুকাটা নদী, জয়নাল আবেদীন শিমুল বাগান,টেকেরঘাট শহীদ সিরাজ লেক সহ এ উপজেলার সব দর্শনীয় স্থানে সব ধরণের দেশী বিদেশী পর্যটকদের হাওর বা পানিতে যে কোন ধরণের দূর্ঘটনা কিংবা পানিতে ডুবে প্রাণহানীরকর ঘটনা এড়াতে টাঙ্গুয়া, টেকেরঘাট পার্শ্ববর্তী হাওর ও নদী সমুহে ইঞ্জিন চালিত(ট্রলার) নৌকা/ ষ্পীডবোট/ লঞ্চসহ যে কোন ধরণের নৌযানে রাত্রী যাপন দ্রুত নিষিদ্ধ করণে আইনি পদক্ষেপ গ্রহনের।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন