হিজরি নববর্ষ ১৪৪২ বরণ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল – গ্রামীন নিউজ২৪ টিভি

মোঃ মহিউদ্দিন, বাঘাইছড়ি, রাঙ্গামাটি, প্রতিনিধিঃ পার্বত্য এলাকার অন্যতম ইসলামী সাংস্কৃতিক সংগঠন,আন নুর ইসলামী সাংস্কৃতিক ফোরামের উদ্যোগে হিজরি নববর্ষ ১৪৪২ বরণ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল বটতলী আদনান কমিউনিটি সেন্টারে আজ শুক্রবার বিকাল ৩ টায় অনুষ্ঠিত হয়।

এতে উপস্থিত ছিলেন, হিজরি নববর্ষ উদযাপন পরিষদ বাঘাইছড়ি উপজেলার সাবেক সভাপতি মুহাম্মদ আবদুল বারী, বাংলাদেশ ইসলামী যুবসেনা বাঘাইছড়ি উপজেলা যুগ্ম-আহ্বায়ক মুহাম্মদ ছালোউদ্দিন কাদের, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা বাঘাইছড়ি উপজেলা শাখার আহ্বায়ক মুহাম্মদ আরফাতুর রহমান, আন নুর ইসলামী সাংস্কৃতিক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শায়ের ওসমানগণি কাদেরী প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, সারা বিশ্বে বসবাসরত প্রতিটি ধর্মাবলম্বীদের মাঝে কিছু সন বা বর্ষপঞ্জি অনুসৃত হয়ে আসছে। খ্রিষ্ট্রীয় সন, হিজরি সন, বাংলা সন, তথা বঙ্গাব্দ এই তিনটি সন মোটামুটি সারা বিশ্বে অনুসৃত হয়ে থাকে। প্রতিটি সন ও বর্ষপঞ্জির গোড়াপত্তনের পেছনে নানা কার্যকারণ, ঐতিহ্য ও ইতিহাস রয়েছে। তেমনি মানবতার নবী ইসলামের প্রবর্তক হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মক্কার স্বদেশভূমি থেকে মদিনায় হিজরতের ঘটনাকে স্মরণীয় করে রাখতে ইসলামের দ্বিতীয় খলিফা হযরত ওমর (রা.) এর শাসনামলে ৬৩৯ খ্রিস্টাব্দে হিজরি সন নামে স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যধর্মী সনের প্রবর্তন ঘটে।

৬২২ খ্রিষ্টাব্দের ১২ রবিউল আউয়াল হিজরতের ঘটনা ঘটলেও হিজরতের ১৭ বছর পর মহররম মাস থেকে হিজরি সন গণনা শুরু হয়। বিশ্বের বর্তমানে দেড়শ কোটি মুসলমানদের জীবনধারা ও সংস্কৃতির সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে মিশে আছে হিজরি সন। মুসলমানদের ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান ও বিভিন্ন উৎসব হিজরি সন ও তারিখ ঘিরে উদ্যাপিত হয়। তাই এ দেশে পহেলা মহরম রাষ্ট্রিয়ভাবে সাধারণ ছুটির ঘোষণা করার আহ্বান জানান উপস্থিত নেতৃবৃন্দ।

পরিশেষ মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে রোগমুক্তির জন্য বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করা হয়।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন