তাহিরপুরে ৮ বছরের শিশু ধর্ষণের ঘটনায় আটক ১ – গ্রামীন নিউজ২৪ টিভি

শাবজল হোসাইন: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় ৮ বছরের এক শিশুকে খাবার খাইয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগে জহুর মিয়া (৩৫) নামে মধ্যবয়সী এক ব্যক্তিকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

আটককৃত আসামী হলেন- উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের পুরান লাউরগড়ের গ্রামের হাসেন আলীর ছেলে জহুর মিয়া (৩৫), তার ২ ছেলে ১ মেয়ে ও তার স্ত্রী প্রবাসী। এবং নির্যাতিতা হলেন একই গ্রামের শিশু (৮)।

এই ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের পুরান লাউরগড় গ্রামে।

এঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে ২৫ আগষ্ট রাতে তাহিরপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে বুধবার দুপুরে ওসি আতিকুর রহমানের দিকনির্দেশনায় ও এসআই পাভেল’র তেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে পাশ্ববর্তি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার গামাই তলা এলাকা থেকে স্থানীয়দের সহযোগিতায় জহুরকে আটক করে নিয়ে আসে পুলিশ।

পরবর্তীতে জহুরের বিরুদ্ধে তাহিরপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু করা হয়। মামলা নং-১৮, ২৮/০৮/২০ ইং, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ধারা ৯ এর ৪ (খ) দণ্ডবিধি।

অভিযোগ ও থামা সুত্রে জানাযায়, উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের পুরান লাউরগড় গ্রামের ধর্ষনের শিকার শিশুটি তাদের পরিবারের সবার ছোট। অভিযুক্ত জহুর মিয়ার বাড়ি শিশুটির বাড়ির পাশেই। জহুরের পরিারের সছলতার জন্য তার স্ত্রী কাজের সন্ধানে প্রবাসী রয়েছেন এবং তার ২ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। তার স্ত্রী প্রবাসী হওয়ায় চলতি বছরের কোরবানী ঈদের পূর্বে ঐ শিশুটিকে কৌশলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে পটেটো আর সিংঙ্গারা খাইয়ে ২বার ও এর পূর্বে আরো একবার ধর্ষন করে।
সম্প্রতি শিশুটি তার শরীলে ও গোপনাঙ্গে ব্যাথা অনুভব হলে তার খেলার সাথীদের জানায়। এই কথা গুলো শিশুটির মায়ের কানে পৌছায়। পরে গত ১৬ই আগষ্ট শিশুটি মা কৌশলে জানতে চাইলে তার মায়ে কাছে জানায় জহুর তার সাথে তিন দিন সিঙ্গারা ও পটেটোর খাইয়ে শারীরিক সম্পর্ক করেছে। আর এই বিষয়টি কাউকে বললে তাকে পটেটো আর সিংঙ্গারা দিবে না এবং তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এই ভয়ে শিশুটি কাউকে না বলে ঘটনাটি গোপন রাখে। এই বিষয়টি শিশুটির মা জানার পর নিজ পরিবারের সদস্যদের কাছে জানায় এবং এলাকায় গন্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে একটি পক্ষ বিচার শালিশে সমাধানের জন্য চেষ্টা করে। কিন্তু শিশুটির মা কারো কথা না শুনে আইনের মাধ্যমে বিচার পেতে বাদী হয়ে গত ২৬আগষ্ট রাতে তাহিরপুর থানায় নারী ও শিশু নিযার্তন দমন আইনে মামলা দায়ের করে। এর পর বুধবার অভিযান চালিয়ে পাশ্ববর্তি বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার গামাই তলা এলাকা থেকে তাকে আটক করে তাহিরপুর থানা পুলিশ।

ওসি আতিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত আসামীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু দমন আইনে মামলা রুজু করে আজ সকালে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন