দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম কথা বলছেন- গ্রামীন নিউজ২৪ টিভি

গ্রামীন নিউজ ডেস্কঃ রাতের আধারে কর্তব্যস্থলের বাসায় দূর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত হয়ে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসাইন্সেস ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম কথা বলতে পারছেন। তার অবস্থা স্থিতিশীল হলে রাত ৯টার দিকে মাথায় অস্ত্রোপচার হতে পারে।

বৃহস্পতিবার (০৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই ইউএনওর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে যান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। পরে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ইউএনওর সঙ্গে কথা বলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ইউএনও ওয়াহিদা খানম আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। তার সেন্স আছে এবং স্পষ্ট কথা বলতে পারছেন। তাকে যখন হাসপাতালে আনা হয় তখনকার চেয়ে এখন অনেক স্টেবল। তার প্রেশারটা আপ-ডাউন করছে। যদিও সাক্ষাৎকারের সময় তার প্রেশার ৮০ বাই ১২০ এর মধ্যে ছিল। অক্সিজেন ৯৭ থেকে ৯৯ ভাগ রয়েছে।

‘তার মাথার বাঁ দিকটা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ডান পাশের কিছু অংশ প্যারালাইজড অবস্থায় আছে। প্রেশারসহ সব প্যারামিটার ভালো হলে আশা করা যায় আজ রাত ৯ টায় তার অপারেশন হবে। ’

‘ইউএনওর মাথার কিছু অংশ মস্তিষ্কের উপরে প্রেশার তৈরি করেছে। সেটা অপারেশনের মাধ্যমে অপসারণ করা গেলে অবস্থার উন্নতি হবে বলে এখানকার আমাদের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা আশা প্রকাশ করেছেন। ’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নিউরোসায়েন্সের প্রধান দিন মোহাম্মদসহ এখানে অত্যন্ত ভালো চিকিৎসক যারা রয়েছেন, তারা অত্যন্ত বিচক্ষণ, তারা সবাই এই ইউএনওর চিকিৎসায় সহযোগিতা করবেন। পাশাপাশি আমরা সাত সদস্যের একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করেছি। তার সেরা ট্রিটমেন্ট নিশ্চিত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে।

আমরা আশা করছি, সবকিছু যদি ভালো থাকে, তাহলে আজ রাত ৯টায় তার অপারেশন হবে এবং তার ইমপ্রুভমেন্ট হবে। ’

উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে নেওয়া হবে কি-না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, তার অবস্থা আগের চেয়ে ভালো। প্রয়োজন হলে সবকিছুই করা হবে।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন