সুন্দরগঞ্জে স্কুল মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা ডেঙ্গু আতঙ্কে – গ্রামীন নিউজ২৪

ফাহিম হাসান,সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা)প্রতিনিধিঃ সুন্দরগঞ্জের বেকাটারী নব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে মাটি ভরাট না করায় জলবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। পাশাপাশি বিদ্যালয় ভবনের পূর্ব পাশের খালের মধ্যে দীর্ঘদিন পানি জমে থাকার কারণে ডেঙ্গু মশা বংশবিস্তার করার সম্ভাবনা থাকায় কোমল মতি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মাঝে ডেঙ্গু আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বিদ্যালয়টি ২০০৯ সালে শিক্ষানুরাগী মোজাফফর হোসেনের প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠিত হয়। পরে ২০১৩ সালে তা জাতীয়করণ করা হয়। বর্তমানে সেখানে প্রধান শিক্ষকসহ ৪ জন শিক্ষক রয়েছে। ছাত্র-ছাত্রী প্রায় ৩০০ জন। বিদ্যালয়টি অত্যন্ত সু-নামের সাথে পাঠ দান করে আসছে। পরীক্ষার ফলাফলও অনেক ভাল। কিন্তু বিদ্যালয় মাঠটি অত্যন্ত নিচু। যার কারনে সামান্য বৃষ্টি হলেই মাঠে পানি জমে জলবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। ছাত্র-ছাত্রীরা খেলাধুলার মত বিনোদন থেকে বঞ্চিত হয়ে পড়েছে। এমনকি তারা একটু মাঠে চলাফেরা করতেই জামাকাপড় নোংরা করে ফেলে। সেই সাথে মাঠের পূর্ব কোণের খালটি আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে কোন সময় খুদে শিক্ষার্থীরা সেখানে পড়ে দূর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। পাশাপাশি ওই খালটিতে দীর্ঘদিন পানি জমে থাকে। তাছাড়া শিক্ষার্থীরা খালটিতে ময়লা আবর্জনা ফেলে আসছে। একারনে খালটি যেন ময়লা আবর্জনার স্তুপে পরিনত হয়েছে। যে জন্য সেখানে ডেঙ্গু মশার বংশবিস্তার করার আশঙ্কা রয়েছে। এজন্য শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা ডেঙ্গু আতঙ্কে ভুগছে। এনিয়ে অভিভাবক শাহ জালালের সাথে কথা হলে,তিনি বলেন, সামনে স্কুল খুললে কিভাবে ছেলেমেয়েরা পড়ালেখা করবে! লেখাপড়ার মান ভাল কিন্তু সেখানে নেই কোন খেলার মাঠ, আশেপাশে দূর্গন্ধে দম বন্ধ হয়ে যায়। মাঠটি ভরাট করা একেবারে জরুরী হয়ে পড়ছে। এব্যাপারে প্রধান শিক্ষক লাইজু বেগম জানান, স্থানীয় জন প্রতিনিধি,উপজেলা চেয়ারম্যান, জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করা হলেও এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন