ঘিওরে আগুনে পুড়ে নি:স্থ হলেন সিএনজি চালক – গ্রামীন নিউজ২৪

নাহিদ শিকদার মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: মানিকগঞ্জ জেলার ঘিওর উপজেলার রামকান্তপুর গ্রামে গতরাতে আগুনে পুড়ে নিঃস্থ হলেন সিএনজি চালক আলামিন। আলামিন মিয়া জনতার বিবেককে বলেন ‘গতকাল সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে আমরা ঘুমিয়ে ছিলাম। রাত আনুমানিক ২.৩০ মিনিট হঠাৎ একটা শব্দ শুনে ঘুম ভেঙে যায়।তারপর একটা বাজে গন্ধ আসে। তারাতাড়ি উঠে দেখি আমার ঘরের একাংশ পুড়ে গেছে এবং আমার সিএনজি পুড়ে গেছে। সবাই উঠে নিজেদের রক্ষা করি এবং পানি দিয়ে আমি সহ এলাকার লোকজন আগুন নিভানোর চেষ্টা করি। অনেকক্ষন চেষ্টার পর আগুন নিভানো সম্ভব হয়। ততক্ষণে আমার গাড়ি পুড়ে শেষ হয়ে যায়। আমি আমার পরিবারের একমাত্র উপারর্জনক্ষম ব্যক্তি, সিএনজি চালিয়ে আমি আমার পরিবারের মুখে খাবার তুলে দেই। আমার দুটি সন্তান রয়েছে,আমি এনজিও থেকে লোন নিয়ে গাড়ি কিনি, তাদের কিস্তি টাকা কিভাবে পরিশোধ করব তা আমি জানি না। আমি চারপাশে শুধুই অন্ধকার দেখছি। আমার গাড়ি পুড়ে যাওয়ায় আয়রোজগার সব বন্ধ হয়ে গেছে এমতাবস্থায় আমি উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করছি। যেন আমাকে সন্তানেদর নিয়ে না খেয়ে থাকতে না হয়। তিনি আরও বলেন চেয়ারম্যান সাহেব আমাদের বাসায় আসছিলেন তিনি সহযোগিতা করার কথা বলেন তার ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে। এলাকাবাসী জানান আলামিন খুব কষ্ট করে সিএনজি চালিয়ে তার পরিবারের মুখে খাবার তুলে দেন।কিন্তু সিএনজি পুড়ে যাওয়ায় তার ভবিষ্যৎ জীবন নিয়ে শংকিত। তাই এলাকাবাসী উপজেলা প্রশাসন ও সরকারের কাছে দাবি জানান যে তাকে আথিক সহায়তা প্রদান করে তার পরিবারকে অনিশ্চিত ভবিষ্যতের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

     এই ধরনের আরও খবর

ফেসবুক

পুরাতন খবর খুঁজুন